মনছুর হত্যার প্রধান আসামী অধরা মামলা তুলে নিতে আসামীদের হুমকী

43

মনছুর হত্যার প্রধান আসামী অধরা
মামলা তুলে নিতে আসামীদের হুমকী

স্টাফ রিপোর্টর, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার নাটিমা ইউনিয়নের কুড়িপোল গ্রামের কৃষক মনছুর হত্যার প্রধান আসামী অধরা। ১৬ মাস পেরিয়ে গেলেও পুলিশ মামলার প্রধান আসামী শিহাব উদ্দীন সাকিবকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এদিকে প্রধান আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় প্রতিনিয়ত বাদীকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকী দিচ্ছে। ইতমধ্যে একাধিকবার আসামীরা বাদীকে অপহরণের চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। বাদীর একটি মাইক্রো গাড়ি থাকায় সেটি ভাংচুর করার চেষ্টা করছে জামিনে থাকা আসামীরা। এছাড়া মামলা তুলে না নিলে আসামীরা নিজেদের ফসলের ক্ষেক নিজেরা নষ্ট করে মিথ্যা মামলায় ফাসানোর হুমকী দিচ্ছে মাসুম পারভেজকে। এ বিষয়ে বাদী মাসুম পারভেজ আসামীদের বিরুদ্ধে ৭ ধারায় মামলা করেছেন। সাতধারা মামলার আসামী কুড়িপোল গ্রামের রহিম পাটোয়ারির ছেলে মোজাম্মেল হক, তার স্ত্রী ফিরোজা বেগম ও প্রতিবেশি মোবশ^রা সরা প্রতিনিয়ত পরিবারটির উপর অত্যাচার করে যাচ্ছেন। মানবাধিকার বাস্তবায়স সংস্থার ঝিনাইদহ শাখা বরাবর এক লিখিত অভিযোগে মাসুম পারভেজ উল্লেখ করেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ২০২১ সালের ২৩ মে তার পিতা মনছুর আহম্মেদকে দেশীয় অস্ত্র, লোহার রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে প্রতিবেশি শরিফুল ইসলাম, মহারম আলী ও তার দুই ছেলে নুরুন্নবী সজিব, শিহাব উদ্দিন সাকিব এবং স্ত্রী কহিনুর বেগম। মারধরের ফলে তার পিতা চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৮ মে মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় মহেশপুর থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করা হলে আসামী মহররম আলী, কোহিনুর বেগম ও শরিফুল ইসলাম জামিন লাভ করেন। জামিন হতে এসে কারাগারে আটক আছে নুরুন্নবী সজিব। কিন্তু এই মামলার প্রধান আসামী শিহাব উদ্দীন সাকিব ঢাকায় আত্মগোপন করে আছে বলে অভিযোগ করা হয়। বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার সভাপতি আমিনুর রহমান টুকু বলেন, পরিবারটি এখন অসহায় এবং ন্যায় বিচার পাওয়ার দাবী রাখে। পুলিশের সহায়তা অসহায় পরিবারটিকে আইনী সহায়তা প্রদানের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here