হরিণাকুন্ডুতে সর্পদংশন অপচিকিৎসা বন্ধে ওঝাদের প্রশাসনিক নির্দেশ।

188

হরিণাকুন্ডুতে সর্পদংশন অপচিকিৎসা বন্ধে ওঝাদের প্রশাসনিক নির্দেশ।

এ কে এম আজাদ,হরিণাকুণ্ডু প্রতিনিধিঃ

চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা না দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে সাপুড়েদের সাথে মতবিনিময় করেছে থানা পুলিশ। শনিবার বিকেলে পৌরসভা কার্যালয়ে সাপুড়েদের নিয়ে এই মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। এতে পৌর এলাকার অন্তত ৩০ জন সাপুড়ে অংশ নেন।
সাপুড়েদের উদ্দেশে থানার ওসি আব্দুর রহিম মোল্লা বলেন, সাপে দংশনের পর কোনো রোগীকে ঝাড়ফুঁকের মাধ্যমে অপচিকিৎসা না দিয়ে ১০০ মিনিটের মধ্যে তাকে হাসপাতালে পাঠাতে হবে। অধিকাংশ সাপুড়েরা দিনভর রোগীদের ঝাড়ফুঁক দিয়ে শেষে তাকে হাসপাতালে পাঠান। ফলে রোগীর মৃত্যু ঘটে। এ ধরণের অপচিকিৎসা থেকে বিরত থাকতে তিনি সাপুড়েদের প্রতি অনুরোধ জানান। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পর্যায়ক্রমে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে এই মতবিনিময় সভা হবে বলেও জানান তিনি। এ সময় পৌরসভার মেয়র ফারুক হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
সভায় আগত ইজ্জত আলী নামে এক সাপুড়ে বলেন, যদি কোন বিষধর সাপে মানুষকে দংশন করে তাহলে ওঝার পক্ষে তাকে বাঁচানো সম্ভব নয়। এই প্রথম এ বিষয়ে সচেতন করতে সভা করায় তিনি পুলিশকে ধন্যবাদ জানান। ভবিষ্যতে তার কাছে সাপের দংশনের রোগী গেলে তিনি দ্রুত চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানোর জন্য অন্য ওঝাদের প্রতিও অনুরোধ করেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জামিনুর রশিদ বলেন, সাপে দংশনের রোগীর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পর্যাপ্ত অ্যান্টিভেনমের ব্যবস্থা রয়েেেছ। স্বল্প সময়ের মধ্যে রোগী হাসপাতালে আসলে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ্য করা সম্ভব বলেও জানান তিনি।
পৌরসভার মেয়র ফারুক হোসেন বলেন, সাপে দংশনের রোগীকে কোনক্রমেই অপচিকিৎসা না দিয়ে হাসপাতালে নিতে হবে।
সভায় প্রেস ক্লাব সভাপতি সাইফুজ্জামান তাজু, কাউন্সিলর আবু আসাদ রুনু, নিখিল কুমার হালদার, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বনাথ সাধুখাঁ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক রাফেদুল হক সুমন প্রমূখ বক্তব্য দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here